Theme images by kelvinjay. Powered by Blogger.

Breaking News

Banner


Trulli

ভিডিও

জাতীয়

আন্তর্জাতিক

লাইফস্টাইল

TECH ঝলক

Sports ঝলক

বিনোদন ঝলক

» » » » » Exclusive With Subhasish Ghosh | রাজ‍্যজুরে বিজেপি সমর্থনে চোরাস্রোত,তৃণমূল ধ্বসের সম্ভাবনা।



শুভাশিস ঘোষ- মেরু করনের ভয়ঙ্কর রাজনীতির ছোবল কতটা প্রবল আকার ধারন করে ঝড়ের মতো এ রাজ‍্যের শাসক দলকে উড়িয়ে নিয়ে যেতে চলেছে সম্প্রতি তারই কিছু আভাস পাওয়া যাচ্ছে সোস‍্যাল মিডিয়াতে। বলতে দ্বিধা নেই এই ধারনা আরো বদ্ধমূল হয়েছে যখন দেখি আমার পরিচিত কট্টর তৃণমূল সমর্থক নেতা কর্মীরা একের পর এক দল বিরোধী মতামত ও ছবি ক্রমাগত পোষ্ট করে চলেছেন। এদের অনেককেই আমি ব‍্যাক্তিগত ভাবে চিনি জানি যারা শাসক দলের বিভিন্ন পোষ্ট হোল্ড করছেন এবং রাজ‍্যের শাসক দলের যেকোন মিছিল মিটিং এ নিয়মিত অংশগ্রহন করেন। অথচ এদের একাউন্ট থেকে যেভাবে  একের পর এক নেত্রী মমতা ব‍্যানার্জির সম্পর্কে কটাক্ষ উড়ে আসছে তা যে মমতার কট্টর বিরোধীদেরও হার মানাচ্ছে তা বলাই বাহুল‍্য। যেখানে নেত্রীর গত সাত বছরে তার পরিবার কালিঘাটে কতগুলো জমি প্লটের মালিক হয়ছেন তার বৃতান্ত যেমন দেওয়া হয়েছে তেমনি এই সাত বছরে নেত্রী কিভাবে কতটা মুসলিমদের মাথায় তুলেছেন তার হিসাবও তুলে ধরা হচ্ছে। বলতে বাধা নেই এটা যারা করছেন তাদের বেশিটাই হিন্দু বাঙালি তৃণমূলী। এদের অনেকের সাথে একান্তে আলোচনা করেও দেখতে পাচ্ছি যে দলের হিন্দু সম্প্রদায়ের ভোট অনেকটাই এবার ভিতরে ভিতরে বিজেপির বাক্সে যাবে। যার আঁচ খোদ নেত্রী করতে পেরেছেন কিনা আমার জানা নেই। এই কদিনে কয়েকটি জেলা ও কলকাতার কিছু নীচু তলার নেতা কর্মীদের সাথে কথা বলে মনে হয়েছে এদের অনেকেই দলের কাছে কিছু পেয়েছেন তাই আর এখান থেকে নতুন করে কিছু পাওয়ার নেই এটা বুঝেই বিজেপির দিকে ঝুকে আছেন। যেখানে লোকসভা নির্বাচন পর্যন্ত অপেক্ষা করে দেখতে চান জল ঠিক কতটা বিজেপির দিকে গড়ালো। আমার দীর্ঘ দিনের রাজনৈতিক অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি এধরনের সুবিধাবাদি ট্রেন্ড বাংলার রাজনীতিতে সত‍্যিই বিরল ছিল যা আজ হতে চলেছে। সবাই কেমন ঘোরের মধ‍্যে হেটে চলেছে যেখানে বিজেপিকে সামনে রেখে সস্তায় বস্তা বস্তা লাভের স্বপ্নে এরা এখন বিভোর। 

যেখানে উগ্র সাম্প্রদায়িকতার বিষবাস্ফ গ্রাস করতে চলেছে গোটা বাঙালি সমাজকে। আমি গ‍্যারেন্টি দিয়ে বলতে পারি আজকের এই পরিস্থিতি সৃষ্টির জন‍্য দায়ি একমাত্র আমাদের দিদি। যিনি বিজেপির, আরএসএসের বিরুদ্ধে হুংকার দিয়েছেন কিন্তু কামড়াতে আসেননি। তিনি গর্জন করেছেন কিন্তু বর্ষনের তিল মাত্র চেষ্টা করেননি। উল্টে প্রতি দিন নিয়ম করে বিজেপির মুন্ডুপাত করে তাকেই বিড়াল থেকে বাঘ বানিয়েছেন। 

আমি নিশ্চিত এ রাজ‍্যে বামপন্থীরা ক্ষমতায় থাকলে এরকম পরিস্থিতি  কখনই তৈরি হতে দিতনা। প্রয়োজনে আরো একশোটা নেতাই নানূর ছোট আঙারিয়া সৃষ্টি করে দিত। কারন বামেদের রাজনৈতিক আর্দশের মধ‍্যেই প্রতিবিপ্লবীদের বিরুদ্ধে সশস্ত্র প্রতিরোধ শব্দটা রয়েছে। যেটা আরএসএস হিন্দুত্ববাদীদের দমিয়ে দিতে পারতো। 

কিন্তু দিদির রাজত্বে এসবই অলীক।উল্টে যেভাবে প্রতিদিন বিজেপি নেতারা চমক ধমক দিয়ে গেলেন তাতে কে ভীতু আর কে শেয়ানা সেটাইতো ঠাওর করা গেল না। আর যারই প‍্যাচ পয়জারে ক্রমশই বাজিমাত করে এখন প্রায় চালকের আসনে বিজেপি। যেখানে তৃণমূলের ঘর শত্রুরাই যে তাদের দিদিকে ডোবাতে তোলায় তোলায় হাত পাকাচ্ছেন হোয়াটস‍্যাপ ফেসবুকে তারই কিছু নিদর্শন পেলাম মাত্র।

«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply