Theme images by kelvinjay. Powered by Blogger.

Breaking News

ভিডিও

জাতীয়

আন্তর্জাতিক

লাইফস্টাইল

TECH ঝলক

Sports ঝলক

বিনোদন ঝলক

» »Unlabelled » প্রেমিককে খুন করে দেহে আগুন দিয়েছিল প্রেমিকার বাবা? Ek Jholok



প্রেম করতে গিয়ে ধরা পড়ে যাওয়ায় যুবককে পিটিয়ে আধমরা করে পরে পেট্রোল ঢেলে পুড়িয়ে খুনের অভিযোগ উঠল প্রেমিকার পরিবারের বিরুদ্ধে !প্রতিবেশী কলেজ ছাত্রীর সঙ্গে প্রেম করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়ে যায় যুবক। আর সেই আক্রোশেই যুবককে রাতভর পেটানোর পর তার গায়ে পেট্রোল ছিটিয়ে জ্যান্ত পুড়িয়ে মারল প্রেমিকার বাড়ির লোকেরা।



নৃশংস এই ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুরের ভুপতিনগর থানার খাঁনজাদাপুর গ্রামে। মৃত যুবকটির নাম রঞ্জিত মন্ডল (২১)। শনিবার রাতে ছেলেটিকে দাউদাউ করে আগুনে পুড়তে থাকার খবর পেয়ে ছুটে আসে প্রতিবেশীরা।খবর দেওয়া হয় ভুপতিনগর থানার পুলিশকে। এরপর পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে জল ছিটিয়ে আগুন নেভানোর পর বুঝতে পারে একটি যুবকের দেহ। আধপোড়া দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এই ঘটনায় প্রেমিক সায়নী মন্ডল (১৯) সহ তাঁর পরিবারের মোট ৬ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ। এমন নৃশংস ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে ।



পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ভুপতিনগর দক্ষিণ বায়েনদা গ্রামের বাসিন্দা রঞ্জিতের মা দীর্ঘদিন হল গত হয়েছেন। তারপর তাঁর বাবা দ্বিতীয় বিয়ে করে। এরপর থেকেই ছেলেটি খাঁনজাদাপুরে তাঁর মামাবাড়িতে থেকে বড়ো হয়। রঞ্জিতের দুই ভাই দাদা ডিফেন্স এর জওয়ান।ছুটিতে বাড়ি এসেছিল ।ভায়ের এমন পরিনতি দেখে সে দিশেহারা। থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন দাদা।



মামাবাড়ির সামান্য দূরে থাকা সায়নীর সঙ্গে আলাপ হয় রঞ্জিতের। সেই আলাপ ধীরে ধীরে প্রেমে পরিণতি পায়। বেশ কয়েক বছর ধরে সবার

চোখের আড়ালে চলতে থাকে তাঁদের প্রেম। সোনার গয়না থেকে অর্থ সবকিছু হাতিয়েছে সায়নি, এমনটা অভিযোগ। বর্তমানে মেয়েটি কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্রী। আর ছেলেটি দিল্লীতে সোনার কাজ করত।



দিন চারেক আগে দিল্লী থেকে মামা বাড়িতে ফেরে ছেলেটি। শুক্রবার রাতে মেয়েটি তাঁকে ফোন করে দেখা করতে বলে। রাতে খাওয়া দাওয়ার পর সবাই ঘুমিয়ে গেলে ছেলেটি সবার অগোচরে বাড়ি থেকে বেরিয়ে গিয়ে মেয়েটির সঙ্গে দেখা করতে যায়।সেই সময় তাঁদের দু'জনকে হাতেনাতে ধরে ফেলে মেয়েটির পরিবার। শুরু হয় গণধোলাই। ধীরে ধীরে ছেলেটি নিস্তেজ হয়ে পড়লে তাঁকে টেনে পাশের ঝোপের কাছে নিয়ে গিয়ে গায়ে পেট্রোল ছিটিয়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয় বলে পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে উঠে এসেছে। যদিও মেয়ের পরিবারের বক্তব্য তাদের মেয়েকে বিরক্ত করছিল এই ছেলেটি।মেয়েটি না বলে দেওয়ায় সে তাদের বাড়ীর সামনে গিয়ে আত্মহত্যা করেছে যুবক । পলিশ ময়না তদন্তে পাঠিয়েছে দেহ। তারপর বোঝা যাবে আসল রহস্য ।


«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply